আঁধার নামতেই আকাশ জুড়ে মহাজাগতিক মহাবিস্ময়

কলকাতা: এ যেন মহাজাগতিক ত্র্যহস্পর্শ৷ একই দিনে সুপার মুন, ব্লু মুন ও পূর্ণগ্রাস চন্দ্র গ্রহণের সাক্ষী থাকতে চলেছেন দেশবাসী৷ মহাকাশ বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ভারতের সর্বত্র এই দৃশ্য দারুণভাবে দেখা সম্ভব৷ তবে ব্যতিক্রম আফ্রিকা৷

৩১ জানুয়ারি বুধবার সন্ধ্যা ৬টা ২১ মিনিট থেকে রাত ৭টা ৩৭ মিনিট পর্যন্ত থাকবে পূর্ণগ্রাস চন্দ্র গ্রহণ৷ সময়ের হিসাবে চাঁদের গ্রহণ চলবে ৭৬ মিনিট৷ সন্ধ্যা থেকেই এই অনবদ্য দৃশ্য দেখার সুযোগ মিলবে৷

গ্রহণের সময় সূর্য, চন্দ্র এবং পৃথিবী এক সরলরেখায় চলে আসে৷ পৃথিবীর ছায়া চাঁদের উপর গিয়ে পড়লে তাকে চন্দ্রগ্রহণ বলে৷ পঞ্জিকা মতে বুধবার কলকাতার আকাশে চাঁদের উদয় হবে বিকাল ৫টা ১৭ মিনিটে৷ এর ঠিক পরেই শুরু হবে গ্রহণ৷ আফ্রিকা ছাড়া গোটা বিশ্ব থেকেই দেখা যাবেই এই দৃশ্য৷

শুধু গ্রহণ নয়৷ একই সঙ্গে সুপার মুন ও ব্লু মুন হতে চলেছে এই একই দিনে৷ সুপার মুন অর্থাৎ অতিকায় চন্দ্র৷ কক্ষপথে ঘুরতে ঘুরতে চাঁদ পৃথিবীর খুব কাছে চলে আসে৷ তখন রাতের আকাশে তাকে বেশ বড় দেখায়৷ এদিন যে চাঁদ দেখা যাবে তা নাকি স্বাভাবিকের থেকে ১৪ শতাংশ বড় দেখাবে৷ এবং ৩০ শতাংশ বেশি উজ্জ্বল থাকবে চাঁদ৷

আর এক মাসে দু’বার পূর্ণিমা হলে তাকে বলা হয় ব্লু মুন৷ চলতি মাসে ২তারিখে পূর্ণিমা হয়েছে৷ আর আজ ফের পূর্ণিমা৷ সাধারণত দু’বছর আট মাস পর ব্লু মুন হয়৷

জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের মতে এই তিনটি ঘটনা চট করে ঘটে না৷ ভারতের ক্ষেত্রে ৩৫ বছর পর এই বিরল ঘটনা ঘটতে চলেছে৷ কোন কারণে এই দৃশ্য দেখার সুযোগ মিস করলে অপেক্ষা করতে হবে আরও দশ বছর৷ ২০১৮ সালে ডিসেম্বর মাসে ভারত থেকে পূর্ণগ্রাস চন্দ্র গ্রহণ দেখা যাবে৷

Releated Post